বিবাহ – শাদি যাদের সাথে জায়েয এবংযাদের সাথে হারাম | Marriage with who are permissible and forbidden

বিবাহ – শাদি যাদের সাথে জায়েয এবংযাদের সাথে হারাম | marriage-with who-are-permissible-and forbidden

যাদের সাথে বিবাহ হারাম (With whom marriage is forbidden)

১. নিজের সন্তানের সাথে । যেমন : ছেলে , ছেলের ছেলে , তার ছেলে , নাতি , নাতির ছেলে ইত্যাদি যতই নীচের দিকে যাক ।
২. বাপ , দাদা , পরদাদা , নানা , পরনানা , ইত্যাদি যতই ঊর্ধ্বে যাক না কেন ।
৩. ভাই । ( আপন বা বৈমাত্রেয় বা বৈপিত্রেয় ) । মাতা ও পিতা উভয়ে ভিন্ন হলে সেরূপ ভাইয়ের সাথে বিবাহ জায়েয । ৪. ভাতিজার সাথে
৫. ভাগিনার সাথে ।
৬. মামা , অর্থাৎ , মায়ের আপন বা বৈমাত্রেয় বা বৈপিত্রেয় ভাইয়ের সাথে ।
৭. চাচা , অর্থাৎ , পিতার উপরোক্ত তিন প্রকার ভাইয়ের সাথে ।
৮. জামাই , অর্থাৎ , মেয়ের সাথে যার বিবাহের আক্দ হয়েছে , তার সাথে । ( চাই সহবাস তার সাথে হোক বা না হোক ) ৯. মায়ের স্বামী , অর্থাৎ , পিতার মৃত্যুর পর মা যদি দ্বিতীয় স্বামী গ্রহণ করে এবং তার সাথে সহবাস হয় , তার সাথে ।
১০. সতীনের পুত্রের সাথে ।
১১. শ্বশুর , তার পিতা , দাদা , পরদাদা প্রমুখের সাথে ।
১২.ভগ্নির স্বামীর সাথে , যে পর্যন্ত ভগ্নি তার বিবাহে থাকে ।
১৩.ফুফা এবং খালুর সাথে , যে পর্যন্ত ফুফু ফুফার এবং খালা খালুর বিবাহে থাকে ।
১৪ নসবের দিক দিয়ে অর্থাৎ , জন্ম ও জাতিগত দিক দিয়ে যে সব আত্মীয় ও আপনজনের সাথে বিবাহ হারাম ( যেমন : বাপ , দাদা , ছেলে , চাচা , মামা ইত্যাদি ) । তদ্রূপ দুধের দিক দিয়েও সেসব আত্মীয়দের সাথে বিবাহ হারাম । যেমন : দুধবাপ , দুধ ভাই , দুধ পোতা প্রমুখের সাথে ।
১৫. অন্য কোন ধর্মাবলম্বী পুরুষের সাথে ।
১৬.কারও স্ত্রী থাকা অবস্থায় বা তালাকের পর ইদ্দতের সময় অন্য পুরুষের সাথে বিবাহ হারাম ।
১৭. আপন শ্বশুরের সাথে ।
১৮.কোন পুরুষ কোন নারীর সাথে যেনা করলে ঐ নারীর মা ও মেয়ে ( বা মেয়ের অর্থাৎ , নিম্নদিকের যে কোন মেয়ে ) এর সাথে ঐ পুরুষের বিবাহ দোরস্ত নয় ।
১৯.কোন নারী কামভাবের সাথে বদ নিয়তে অপর কোন পুরুষের শরীর স্পর্শ করলেও উপরোক্ত হুকুম । তদ্রূপ কোন পুরুষ কামভাবসহ বদ নিয়তে কোন নারীকে স্পর্শ করলেও ঐ পুরুষের সন্তানগণ ঐ নারীর জন্য হারাম হয়ে যায় ।
২০. ভুলবশতঃ কামভাবের সাথে কন্যা বা শাশুড়ীর গায়ে হাত দিলে স্ত্রী ( অর্থাৎ , ঐ কন্যার মা বা ঐ শাশুড়ীর মেয়ে ) চিরতরে হারাম হয়ে যায় । তাকে তালাক দিয়েই দিতে হবে ।
২১.কোন ছেলে কুমতলবে বিমাতার শরীরে হাত লাগালে বা বিমাতা কুমতলবে বিপুত্রের শরীরে হাত লাগালে ঐ নারী তার স্বামীর জন্য একেবারে হারাম হয়ে যায় ।

যাদের সাথে বিবাহ জায়েয (With whom marriage is permissible)

যাদের সাথে বিবাহ হারাম , তারা ব্যতীত অন্য সব পুরুষের সাথে বিবাহ জায়েয , কিন্তু যাদের সাথে বিবাহ জায়েয তা সত্ত্বেও সমাজে অনেকে সেটাকে জায়েয মনে করে না , এরূপ কয়েকজনের কথা উল্লেখ করা হল ।
১. এরূপ ভাইয়ের সাথে বিবাহ জায়েয , যার মা ও বাপ উভয়ে ভিন্ন ।
২. মার চাচাত , মামাত , ফুফাত , খালাত ভাইয়ের সাথে বিবাহ জায়েয ।
৩. বাপের চাচাত , মামাত ভাইয়ের সাথে বিবাহ জায়েয ।
৪. চাচা শ্বশুর , মামা শ্বশুর , খালু শ্বশুরের সাথে বিবাহ জায়েয ।
৫. ননদের স্বামী , ভগ্নিপতি ( যখন ভগ্নি তার বিবাহে না থাকে ) বিয়াই অর্থাৎ , ভাইয়ের শ্যালক , বোনের দেবর ভাসুর , ছেলের শ্বশুর , মেয়ের শ্বশুর প্রভৃতির সাথে বিবাহ জায়েয ।
৬. ফুফার সাথে ( যখন ফুফু তার বিবাহে না থাকে ) খালুর সাথে ( যখন খালা তার বিবাহে না থাকে )
৭. পালকপুত্র , ধর্মছেলে , ধর্মবাপ , ধর্ম ভাইয়ের সাথে বিবাহ জায়েয ।

Apple Watch Ultra launches today থার্টি ফার্স্ট নাইট উদযাপন আবু ত্ব-হা মুহাম্মাদ আদনান এর জীবনী